1. nokhatronews24@gmail.com : ajkarsatkhiradarpan darpan : ajkarsatkhiradarpan darpan
  2. install@wpdevelop.org : sk ferdous :
সাতক্ষীরায় নিউমোনিয়ায় ১৯দিনে হাসপাতালে ৫০৯ শিশু ভর্তি, মৃত্যু ১২ - আজকের সাতক্ষীরা দর্পণ
সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০২:৫৫ পূর্বাহ্ন
১৩ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ খবর :
📰কানাডায় কনসুলেট জেনারেল হলেন দেবহাটার ফারুক হোসেন📰মহাপরিচালকের ব্যাজে ভূষিত হলেন দেবহাটার বীরু📰জেলা সাংবাদিক এসোসিয়েন সাতক্ষীরা’র উদ্যোগে জাকজমকপূর্ণ বনভোজন অনুষ্ঠিত📰সেঁজুতিকে ফুলের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সদর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানগণ📰দেবহাটায় ওয়ারেন্টভুক্ত দুই আসামি গ্রেপ্তার📰ভাষা সৈনিক লুৎফর সরদারের স্মৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন📰দেবহাটায় লাগসই প্রযুক্তি শীর্ষক সেমিনার ও প্রদর্শনী📰দেবহাটায় দরিদ্র জনগোষ্ঠীর মাঝে গরু বিতরণ📰পাইকগাছা সুবিধা বনঞ্চিত শিশুেদের মাঝে শিক্ষা উপকরণ বিতরণ করেন মেয়র সেলিম জাহাঙ্গীর📰গণ টেলিভিশন অনুমোদন পাওয়ায় প্রতিষ্ঠানটির (সিইও) আনিসকে জেলা সাংবাদিক এ্যাসোসিয়েনের পক্ষ থেকে অভিনন্দন

সাতক্ষীরায় নিউমোনিয়ায় ১৯দিনে হাসপাতালে ৫০৯ শিশু ভর্তি, মৃত্যু ১২

প্রতিবেদকের নাম :
  • হালনাগাদের সময় : সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ৬৯ সংবাদটি পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিনিধি: আবহাওয়া পরিবর্তন হওয়ায় সাতক্ষীরায় হঠাৎ করে শিশুদের নিউমোনিয়ার প্রকোপ বৃদ্ধি পেয়েছে। সরকারিভাবে সদর হাসপাতালে মাত্র ২৬টি শিশু শয্যার বিপরীতে ১৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ৯৩জন শিশু ভর্তি ছিল। চলতি মাসের ১৯ দিনে ৫০৯ জন শিশু ভর্তি হয়েছে। যা গড়ে প্রতিদিন ২৭জন করে ভর্তি হচ্ছে। আর এসময়ে মৃত্যু হয়েছে ১২ শিশুর। মাত্র একজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক দিয়ে খুড়িয়ে খুড়িয়ে চলছে শিশু বিভাগ। আর সেটি চলছে দীর্ঘদিন। কর্তৃপক্ষ বলছেন চিকিৎসক ও জনবল সংকটের পরও সেবা প্রদানের সর্বাত্মক চেষ্টা অব্যাহত আছে। প্রতিমাসে শিশু চিকিৎসক চেয়ে প্রতিবেদন প্রেরণ করা হলেও তা কাজে আসছে না। মাত্র একশ’ শয্যার সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে শিশু বেড রয়েছে ১১টি, কেএমপি বেড ৩টি ও কর্তৃপক্ষের চেষ্টায় আরও ১২টি বেড বৃদ্ধিতে মোট ২৬টি বেডের বিপরিতে ৯৩জন শিশুকে এখন চিকিৎসা প্রদান করা হচ্ছে। বর্তমানে হাসপাতালের একটি বেডে ২/৩ জন শিশু দেখা গেছে। বারান্ডা সিড়ির ঘর ও বেডের নিচেও শিশুদের চিকিৎসা চলছে। শুধু ওয়ার্ড নয়, যেখানেই ফাঁকা সেখানেই কাঁথা বালিশ আর গামলা বাটি নিয়ে বিছানা পেতে শিশু রোগির চিকিৎসা চলছে। সঙ্গে অভিভাবকদের চাপ তো আছেই। ৮দিন ১০দিন করে বসে থেকেই অতিরিক্ত চাপের কারণে সুস্থ্য হচ্ছেনা বলে জানান অভিভাবকরা। একমাত্র চিকিৎসক ওয়ার্ডে রোগি দেখে আউটডোরে রোগি দেখার সময়ই পাচ্ছেন না। অভিভাবকরা বলছেন, বিদ্যুতের সংকট, সবস্থানে ফ্যান না থাকা, অতিরিক্ত গরমে শিশু রোগি ও অভিভাবকরাও নাকাল হয়ে পড়ছেন। ফলে জরুরীভাবে আরও শিশু চিকিৎসক যুক্ত করার দাবী ভুক্তভোগিদের।
এবিষয়ে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালের একমাত্র শিশু বিশেষজ্ঞ ডা. অসীম কুমার সরকার জানান, ঋতুজনিত কারণে এখন শিশুদের নিউমোনিয়ার প্রকোপ বৃদ্ধি পেয়েছে, প্রতিদিন গড়ে ২৬ থেকে ৩০ জন করে ভর্তি হচ্ছে। এর ফলে বেড জায়গা সংকুলান হচ্ছে না। রোগি ও রোগির স্বজনরাও কষ্ট পাচ্ছে। তবে তিনি রোগির অভিভাবকদের প্রতি আহবান জানিয়ে বলেন, শিশুরা অসুস্থ্য হলেই দ্রুত চিকিৎসকের কাছে আনার দাবী জানান। তা না হলে পরিস্থিতি জটিল হচ্ছে। আর এ কারণেই অতীতের তুলনায় বেড়েছে মৃত্যুর হারও।

আপনার সামাজিক মিডিয়ায় এই পোস্ট শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর :

সম্পাদক মণ্ডলীর সভাপতি:

এম এ কাশেম ( এম এ- ক্রিমিনোলজি).....01748159372

alternatetext

সম্পাদক ও প্রকাশক:

মো: তুহিন হোসেন (বি.এ অনার্স,এম.এ)...01729416527

alternatetext

বার্তা সম্পাদক: দৈনিক আজকের সাতক্ষীরা

সিনিয়র নির্বাহী সম্পাদক :

মো: মিজানুর রহমান ... 01714904807

নিবার্হী সম্পাদক :

এস.এম আবু রায়হান (বি.বি.এ)...01735045426

© All rights reserved © 2020-2023
প্রযুক্তি সহায়তায়: csoftbd